banner

The New Stuff

Beautiful bright light from golden sky
1124 Views

আদর্শ পিতা হিসেবে আল্লামা ফুলতলী (রহ.)


আদর্শ পিতা হিসেবে আল্লামা ফুলতলী (রহ.)

পিতা।
সন্তানের দুঃখ-কষ্ঠ ঘোচানোর কেন্দ্রবিন্দু।
মমতা আর ভালবাসা দিয়ে ছেলে-মেয়েদেরকে মানুষের মত মানুষ করে পৃথিবীর বুকে দাড়ঁ করাতে চান।
পিতা হওয়া সহজ। কিন্তু একজন আদর্শ পিতা হওয়া কঠিন, অনেক কঠিন। আজ এমন একজন আদর্শ পিতার কথা বলব, যাকে সবাই একবাক্যে চিনে। তিনি হলেন মুকটহীন সম্রাট, বাংলার রূমী, ওলীকুল শিরোমণি, আধ্যাত্নিক রাহবার, রঈসুল কুররা ওয়াল মুহাদ্দিসীন, শামসুল উলামা আল্লামা আব্দুল লতিফ চৌধুরী ছাহেব ফুলতলী (রহ.)
বলে নেই আদর্শ পিতার কিছু গুণাবলী। তাহলে শুনুন-
Fultoli-sab20130115092729

মুকটহীন সম্রাট, বাংলার রূমী, ওলীকুল শিরোমণি, আধ্যাত্নিক রাহবার, রঈসুল কুররা ওয়াল মুহাদ্দিসীন, শামসুল উলামা আল্লামা আব্দুল লতিফ চৌধুরী ছাহেব ফুলতলী (রহ.)

প্রথমেই একজন পুরুষ ‘বাবা’ হওয়ার আগে উচিৎ একজন আদর্শ স্ত্রী নির্বাচন করা। কেননা, আদর্শ পিতা হতে হলে একজন আদর্শ স্ত্রী ছাড়া অসম্ভব। যিনি হবেন ঐ সন্তানের মা। কারণ একজন আদর্শ মা ছাড়া একটা নেক বা সুসন্তান পাওয়া দুষ্কর। তাই একজন স্বতী-সাধ্বী, আদর্শবান ও ধার্মিক নারী চয়ন করতে হবে। ‘মা’ ই হচ্ছেন একটি নেক সন্তান তৈরীর প্রথম প্রতিষ্ঠান। আর তিনি পারিবারিকভাবে বিয়ে করেছিলেন তৎসময়ের শ্রেষ্ঠ আলেমেদ্বীন, সর্বজন মান্য বুজুর্গ, ওলীকুল সম্রাট হযরত মাওলানা আবু ইউসুফ শাহ মোঃ ইয়াকুব বদরপুরী (রহ.) এর তৃতীয়া কন্যাকে।পরবর্তীতে আল্লাহর রেযামন্দি তথা ইবাদাত-বন্দেগীর এক পর্যায়ে বদরপুরী (রহ.) এর ছাহেবজাদীর অন্তরে সংসারের বিরাগ সৃষ্টি হওয়ার প্রেক্ষিতে পীর ও মুর্শিদের (শ্বশুর) নির্দেশে আল্লামা ফুলতলী (রহ.) ফুলতলী গ্রামের মরহুম আব্দুর রশিদ খানের কন্যার সাথে দ্বিতীয় বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। জন্মলগ্ন থেকেই একটা সন্তানের অধিকার শুরু হয়ে যায়। যা তার পিতা-মাতার প্রতি অপরিহার্য। তার একটি নাম চয়ন করা, যা হবে সুন্দর ও অর্থবহ।

হাদীস শরীফে যার বর্ণনা এসেছে, হযরত ইবনে আব্বাস (রা.) বলেন সাহাবায়ে কেরাম বললেন হে আল্লাহর রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম : আমরা পিতা মাতার প্রতি সন্তানের করণীয় সম্পর্কে জানি, তবে পিতা-মাতার উপর সন্তানের অধিকার কী? তখন রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন- ‘পিতা-মাতার উপর সন্তানের অধিকার হল তার সুন্দর নাম রাখা এবং তাকে উত্তম শিষ্ঠাচার শিক্ষা দেয়া’।
আর সেই আধ্যাত্নিক জগতের সম্রাট আল্লামা ফুলতলী (রহ.) তাঁর সন্তানগণের জন্য নির্ধারণ করেছিলেন সুন্দর নাম সমূহ। তা হল-
(রাহনুমায়ে তরীকত ওয়াশ শরীয়ত আল্লামা) ইমাদ উদ্দিন চৌধুরী, (হযরত আল্লামা) নজমুদ্দিন চৌধুরী, মোছাম্মত করিমুন নেছা চৌধুরী, (হযরত মাওলানা) শিহাব উদ্দিন চৌধুরী, মোছাম্মত মাহতাবুন নেছা চৌধুরী, মোছাম্মত আফতাবুন নেছ চৌধুরী, (মুফতি মাওলানা) গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, (হযরত মাওলানা) কমরুদ্দিন চৌধুরী, (হাফিজ মাওলানা) ফখর উদ্দিন চৌধুরী ও (হযরত মাওলানা) হুছাম উদ্দিন চৌধুরী (মহান আল্লাহ যেন উনাদের সকলকে নেক হায়াত দান করেন)
যারা হলেন এক একজন তারকা তুল্য। তাঁদের প্রত্যেকের যেমনি রয়েছে ইলমে দ্বীন তথা শরীয়তের গভীর জ্ঞান তেমনি রয়েছে ইলমে মারিফাত তথা আত্নশুদ্ধির জ্ঞানভান্ডার। তাঁদের প্রত্যেক কে শিক্ষা দিয়েছিলেন উত্তম আদর্শ ও শিষ্টাচার। যা সকলের কাছে সুস্পষ্ট।
অন্যত্র হযরত ইবনে আব্বাস (রা.) বলেন- ‘পিতার প্রতি সন্তানদের অধিকার হল তার সুন্দর নাম রাখা, তাকে কিতাব তথা আল কুরআন শিক্ষা দেয়া এবং যখন প্রাপ্ত বয়স্ক হবে তখন তাকে বিয়ে করানো’। উক্ত হাদীস পর্যালোচনা করলে দেখা যায় যে, আল্লামা ফুলতলী (রহ.) কোনটির ব্যত্যয় ঘটাননি। তাদের প্রত্যেকের যেমন সুন্দর নাম নির্ধারণ করেছেন, তার চেয়ে বশী আল কুরআন ও ইসলাম সম্পর্কে গভীর জ্ঞান শিক্ষা দিয়েছেন। সন্তানকে ছোটবেলা থেকেই আদর্শ ও নৈতিকতা শিক্ষা দিয়ে গড়ে তুলতে হয়। এক্ষেত্রে যদি পিতা-মাতার অর্থ ব্যয় করতে হয় তাহলে পিতা-মাতাকে সেটা করতে হবে। এটা সন্তানের অধিকার। কেননা, এভাবেই একটা সন্তান নেক বা আদর্শবান হয়ে উঠবে। যে তার পিতা-মাতার মৃত্যুর পরে দোয়া করতে থাকবে। যার সওয়াব পিতা-মাতা কবরে থেকে ভোগ করবে।
রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর বাণী- ‘যখন কোন বনী আদম মৃত্যুবরণ করে তখন তিনটি আমল ব্যতীত তার সব আমল বন্ধ হয়ে যায়। (তন্মধ্যে একটি হল) ঐ নেক সন্তান যে তার পিতা-মাতার জন্য দোয়া করবে’। তাই পিতা-মাতার উচিৎ সন্তানকে আদর্শবান হিসেবে গড়ে তোলা। যা হবে পিতা-মাতার জন্য দুনিয়া ও আখিরাতে কল্যাণের উসিলা। আর এ কর্মসমূহ আল্লামা ফুলতলী (রহ.) নিজে সম্পাদন করে গেছেন, যার কারণে আল্লামা ফুলতলী (রহ.)’র ছাহেবজাদা গণ সর্বদা পিতার জন্য দোয়া করছেন, করছেন সওয়াব রেছানী। এটা প্রমাণ করে আল্লামা ফুলতলী (রহ.) ছিলেন একজন আদর্শ পিতা। শুধু তাই নয়, পিতা-মাতার কর্তব্য সন্তানকে বিশুদ্ধ আকীদা বা ধর্মীয় বিশ্বাস শিক্ষা দেয়া।
হযরত লোকমান (আ.) তাঁর সন্তানকে আকীদা শিক্ষা দিতে গিয়ে যে উপদেশ দিয়েছিলেন তার বর্ণনা পবিত্র কুরআন এভাবে দিয়েছে- ‘হে বৎস! আল্লাহর সাথে শরীক করোনা, নিশ্চয় আল্লাহর সাথে শরীক করা মহা অন্যায়’ -(সুরা লোকমান : ১৩)। যদি সন্তান বিশুদ্ধ আকীদা বিশ্বাস না শিখে তাহলে পিতা-মাতাকেই আল্লাহর দরবারে জবাবদিহি করতে হবে। এজন্য পিতা-মাতার উপর দায়িত্ব হল সন্তানকে বিশুদ্ধ আকীদা শিক্ষা দেয়া।
আল্লামা ফুলতলী (রহ.) তিনি নিজ সন্তানদেরকে শিখিয়ে গেছেন নির্ভুল আকীদা ও ধর্মীয় বিশ্বাস। শুধু তাদেরকে নয়, লক্ষ কোটি জনতার মাঝে সঠিক আকীদা বিশ্বাসের ভিত্তি মজবুত করে গেছেন। সন্তানকে সৎচরিত্র, ইবাদাত, হালাল হারাম, রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর মুহব্বত, অনুসরণ অনুকরণ সহ প্রাসঙ্গিক সবকিছু শিক্ষা দেয়া পিতা-মাতার উপর আবশ্যক।আল্লামা ফুলতলী (রহ.) এর একটুও কম করেন নি। নিজে যেভাবে আশিকে রাসুল হিসেবে ছিলেন সুপ্রসিদ্ধ তেমনি, ছাহেবজাদাগণকে আশিকে রাসুলের উৎকৃষ্ট নমুনা হিসেবে রেখে গেছেন ধরা মাঝে। তাঁদের এক একজনকে দেখলে মদীনাওয়ালার কথা হৃদয়ে ভেসে উঠে। পিতা-মাতার প্রতি সন্তানদের অধিকারের অন্যতম ও গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে সন্তানদের মধ্যে সমতা রক্ষা করা। ভালবাসা, পরিচর্যা করা, কোন কিছু প্রদান করা বা অর্থ দেয়ার ক্ষেত্রে সমতা রক্ষা আবশ্যক। এক্ষেত্রে একজনকে অন্যজনের উপর প্রাধান্য দেয়া যাবে না।
হাদীস শরীফে এসেছে রাসুলে আকরাম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এরশাদ করেন- ‘তোমরা তোমাদের সন্তানদেরকে কিছু দেয়ার ক্ষেত্রে সমতা রক্ষা কর’।
আল্লামা ফুলতলী (রহ.) ছাহেবজাদা গণের প্রত্যেককে নিজ নিজ অধিকার দেয়া, ধন-সম্পদ প্রদান, শিক্ষাসহ প্রত্যেক ক্ষেত্রে অনুপম দৃষ্টান্ত রেখে গেছেন। আমরা এই মহান ব্যক্তির জীবন থেকে নিজের জীবনের পাথেয় হিসেবে অনেক কিছু গ্রহণ করতে পারি। পরিশেষে এটাই প্রার্থনা করি, মহান রাব্বুল আলামীন যেন এই মহা মনীষীর দরজা বুলন্দ করে দেন। আমীন।।
Aminul Islam Mahfuj
লিখক- প্রাবন্ধিক, নিয়মিত লিখক, দৈনিক সিলেটের ডাক
(ধর্ম ও জীবন বিভাগ)


This post has been seen 1128 times.
শেয়ার করুন

Recently Published

Untitled-1
»

ইসলাম প্রতিমার বিরুদ্ধে, ভাস্কর্য ও মূর্তির বিরুদ্ধে নয়, একটি দালীলিক পর্যালোচনা

নাজমুল মুহম্মদ ...

Untitled-2
»

আহমাদিয়া মুসলিম জামাত নামধারী কুখ্যাত কাফের কাদীয়ানিয়াদের স্বরূপ উন্মোচন – ২য় খন্ড

সোনার বাংলাসহ গোটা ...

tumblr_m5ttvwJwae1qkwmgko1_1280
»

মেরাজুন্নাবী (সা) এর মূল দীক্ষাকে অস্বীকার করা প্রত্যক্ষভাবে শানে রেসালাতের অস্বীকৃতি

টাইমস৭১বিডি ডেস্ক, ঢাকা ...

18057189_1341071809310969_2890218475897828093_n
»

উম্মেহানী এর পরিচয় ও নাস্তিকদের দাঁত ভাংগা জবাব

মাসুদ পারভেজ – ...

2014-07-23-GayMene1379371366872
»

কিভাবে বাংলাদেশের জেলায় জেলায় বিদেশী অর্থায়নে ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে সমকামীতা

নিলয় হাসান বলছি –  জেনে ...

8715089964_5a14e1f7f9
»

হেফাজতে ইসলামের চেতনার মূল গোড়ায় “ওহাবীবাদ রাজনীতি”

ইন্টারনেট থেকে প্রাপ্ত ...

ddgdgdg
»

কাদীয়ানিয়াত আহমাদিয়া মুসলিম জামাতের স্বরূপ উন্মোচনে ধারাবাহিক আলোচনা- ১ম পর্ব

ব্লগ ডট টাইমস৭১বিডি থেকে ...

14650162_1793332307615351_7045395582977483766_n
»

“খোমেনীকে সমর্থন দেওয়া মানে শিয়াবাদকে সমর্থন দেওয়া”

‘টাইমস৭১বিডি ‘র ...

salamun alaika
»

আমার প্রিয়নবীর পিতা মাতা নিষ্পাপ-মুমিন-ঈমানদার মুসলমান ছিলেন, জাহান্নামী নন

আমার প্রিয়নবীর  (সা) পিতা ...

Shares
Loading...